কালিমা, নামায, রোযা, হজ্ব ও যাকাত নিয়ে ইসলামী জীবন

কোরআন, হাদীস, ইসলাম ও আরবী ভাষা শিক্ষা হবে অনলাইনে!

1,348
আমরা মুসলমান হিসেবে আরবী ভাষা আমাদের নিকট খুবই গুরুত্বপূর্ণ ও পবিত্র একটি ভাষা । আরবী ভাষীদের মাঝেই মহান রাব্বুল আলামীন তাঁর প্রিয় হাবীব , শেষ নবী হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা صَلَّی اللّٰہُ تَعَالٰی عَلَیْہِ وَاٰلِہٖ وَسَلَّم’কে প্রেরণ করেছেন । এই ভাষার মাধ্যমেই তিনি আপন কালাম “কুর’আনুল কারীম”কে জীব্রাঈল عَلَيْهِ السَّلَام এর মাধ্যমে নিজ রাসূলের صَلَّی اللّٰہُ تَعَالٰی عَلَیْہِ وَاٰلِہٖ وَسَلَّم প্রতি সুদীর্ঘ ২৩ বছরে ধারাবাহিকভাবে অবতীর্ণ করেছেন । সুতরাং ইসলামী বিধানানুযায়ী একজন মুসলিম বা মুসলিমাহ হিসেবে আরবী ভাষা শিক্ষার গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম । বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে আরবী ভাষা , কোর’আন ও ইসলাম শিক্ষা বিষয়ক ছোটবড় অসংখ্য প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে । এসব প্রতিষ্ঠানগুলো সার্বিকভাবে শিক্ষার্থীবান্ধব নয় । কোনটি মানসম্মত হলেও সেটা শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যয়বহুল হওয়ায় শিক্ষা অর্জনে তাদের জন্য প্রতিবন্ধক হয়ে দাঁড়ায় । আবার কোনটি সাধ্যের মধ্যে থাকলেও তেমন মানসম্মত না বললেই চলে । এসকল যাবতীয় বিষয়াবলী পর্যবেক্ষণ পূর্বক বিশ্বখ্যাত দ্বীনি শিক্ষাকেন্দ্র মিশর আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের একঝাঁক সাবেক ও বর্তমান তরুণ মেধাবী ছাত্রদের সমন্বয়ে শুরু হচ্ছে “রওদ্বাতুল ইলম” নামে অনলাইন্ ভিত্তিক একটি যুগোপযোগী বিদ্যাপীঠ । এটি প্রাথমিকভাবে পরিচালিত হবে ফেসবুক পেজের মাধ্যমে । এতে থাকছে অনলাইন ভিত্তিক তিনটি ভিন্ন-ভিন্ন কোর্স ।

প্রতিষ্ঠানটি কর্ণধার মিশর প্রবাসী মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল মুস্তফা আল আযহারী জানান , আগামী ১লা নভেম্বর থেকে اِنْ شَاءَ الله عَزَّوَجَلّ আমরা আনুষ্ঠানিক ভাবে এর ক্লাস কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছি । তিনি আরো বলেন- বিশ্বের যে কোন প্রান্তে বসে শিক্ষার্থীরা সরাসরি আমাদের শিক্ষক মন্ডলীর মুখোমুখি হবেন এই ক্লাসের মাধ্যমে । স্কাইপ অথবা ইমুর মাধ্যমে এই ক্লাস অনুষ্ঠিত হবে । এতে মূলত তিনটি ভিন্ন ভিন্ন কোর্স করার সুযোগ পাবেন শিক্ষার্থীরা । সেগুলো হচ্ছে যথাক্রমে – এক. এক বছর মেয়াদী আরবী ভাষা শিক্ষা কোর্স – এটি তিনটি সেমিষ্টার ও ১২টি লেভেলে বিভক্ত । প্রতিটি লেভেলে ১৫ ঘন্টা পাঠদান করা হবে । মিশর থেকে আরবী ভাষী অভিজ্ঞ শিক্ষকগন এই কোর্স পরিচালনা করবেন । দুই. কোরআন শিক্ষা কোর্স । এই কোর্সে কায়দা , নাজারা ও হিফজ এই তিনটি বিভাগ থাকছে । অভিজ্ঞ হাফেজ ও ক্বারীগন এই কোর্স পরিচালনা করবেন । এই কোর্সটি ১৫ই নভেম্বর থেকে চালু হওয়ার কথা রয়েছে । তিন. ইসলাম শিক্ষা কোর্স । তাফসির , হাদিস , ইসলামি আক্বায়েদ , ফিকহ ও আরবী ব্যাকরণ সহ মোট পাঁচটি বিষয় নিয়ে এক বছরের এই কোর্সটি সাজানো হয়েছে । اِنْ شَاءَ الله عَزَّوَجَلّ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত ও অধ্যাপনারত বাংলা ভাষী ইসলামীক স্কলারগণ এই কোর্সগুলো পরিচালনা করবেন । প্রতিটি কোর্স-ই সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে । পর্যায়ক্রমে প্রয়োজন অনুযায়ী আরও নতুন নতুন কোর্স এতে সংযুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা আছে।”

Online Learning
মহান আল্লাহ তায়ালা সর্ব প্রথম “ইক্বরা” শব্দের মাধ্যমে কোরআন অবতীর্ন শুরু করেছেন যার অর্থ “পড়”। এতেই বুঝা যায় যে, জ্ঞানার্জনের গুরুত্ব অপরিসীম । নবী করীম صَلَّی اللّٰہُ تَعَالٰی عَلَیْہِ وَاٰلِہٖ وَسَلَّم’র ঘোষণা যে , কোর’আন ও হাদীসের জ্ঞানীরাই তাঁর উত্তরাধীকারী । যুগে যুগে নবী রাসুলগণ দ্বীনি ইলমের দাওয়াত দিয়েছেন । আওলিয়া-সালেহিনগণ দ্বীনি ইলমের দাওয়াত নিয়ে দেশ-দেশান্তরে গমন করে মানুষকে হেদায়াতের পথে আহবান করেছেন । তাঁদের ভবিষ্যৎ অনুগামী তৈরি করতেই এই অনলাইন ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটির যাত্রা শুরু বলে জানান রওদ্বাতুল ইলম এর কর্ণধার মাওলানা আব্দুল মুস্তফা আযহারী । তিনি এই কার্যক্রমকে গোটা বিশ্বে অনন্য এক উচ্চতায় নিয়ে যেতে চান । তথ্য-প্রযুক্তির এই যুগে দ্বীনি বিষয়গুলোকে সহজ ভাবে মানুষের হাতের নাগালে নিয়ে যেতে চান তিনি ।
তিনি আরো বলেন- ইসলামি মতাদর্শের উপর ভর করে এই শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হবে । বিশ্বের প্রাচীন ও বৃহত্তম দ্বীনি প্রতিষ্ঠান আল-আযাহার বিশ্ববিদ্যালয় গত ১১০০ বছর যাবত সারা বিশ্বে ইলমের দ্যুতি ছড়িয়ে দিচ্ছে । আল আযহারের কারিকুলাম অনুযায়ী ও আল আযহারের মূলনীতির উপর ভিত্তি করে এই প্রতিষ্ঠান ইসলামের খিদমাত করে যাবে বলে তিনি আশাব্যক্ত করেন ।
“রওদ্বাতুল ইলমের”কোর্স সমূহে অংশ নিতে , কোর্সের সকল আপডেট জানতে এবং ইসলামি শিক্ষা মূলক বিভিন্ন পোষ্ট পেতে ফেসবুকে প্রতিষ্ঠানটির অফিসিয়াল পেজের সাথে যুক্ত থাকুন । পেইজের এড্রেস হলো- https://www.facebook.com/rawdatulilmonline/